Advertising
hemel
Advertising
hemel

নবীগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত সাংবাদিক আলীমের ছেলে গুরুতর আহত

নবীগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত সাংবাদিক আলীমের ছেলে গুরুতর আহত

ছনি চৌধুরী, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জের প্রবীণ সাংবাদিক নিহত কামরুল হাসান আলীম ও গজনাইপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান (৩) মোছাঃ সাফিয়া ইয়াছমিনের ছোট ছেলে সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে। পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, সাংবাদিক আলীম হত্যার পর পর সাংবাদিক আলীমের স্ত্রী সাফিয়া ইয়াসমিন ২ ছেলে ১ মেয়েকে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বাবার বাড়ি উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের কায়স্থগ্রামে বসবাস করে আসছিলেন।

জানা গেছে, শুক্রবার সকালে ঘুম থেকে তুলে নিহত সাংবাদিক আলীমের ছোট ছেলে সামি চৌধুরী তুহিন’কে স্থানীয় একটি মাঠে ফুটবল খেলার জন্য ডেকে নেয় কায়স্থগ্রামের সাদ্দিক মিয়ার ছেলে রিদয় মিয়া। এরপর খেলার মাঠে কথা কাটাকাটির জের ধরে রিদয় মিয়াসহ ৫/৬ জন একত্রিত হয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তুহিন (১৬) এর উপর হামলা চালায় এসময় দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে বেধরক মারপিট করলে তুহিন ঘটনাস্থলে জ্ঞান হারিয়ে পেলে।

এরপর স্থানীয় লোকজন তুহিনকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসলে বাড়িতেও এসে হামলা চালায় সাদ্দিক মিয়া গং এ সদস্য ও তার বড় ছেলে এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী আলমগীর মিয়া,রিদয় মিয়া,সা]গর মিয়া সহ আরো বেশ কয়েকজন। সাংবাদিক আলীমের পরিবার দাবী করছে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে এঘটনাটি সংগঠিত হয়েছে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তুহিনকে প্রথমে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে আসংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে , এর আগেও একাধিক বার সাদ্দিক মিয়া তার গংদের নিয়ে নিহত সাংবদিক আলীমের স্ত্রী সাফিয়া ইয়াসমিনের বাবার পরিবারের উপর হামলা,মারপিট সহ নানা অত্যাচার করে আসছিল। দীর্ঘদিন ধরে সাদ্দিক মিয়া এলাকা জুড়ে প্রভাব বিস্তার করে আসছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে আরো জানাযায়, সাংবদিক আলীমের স্ত্রী সাফিয়া ইয়াসমিনের ভাই আব্দুল মান্নান বার বার নির্যাতনের শিকার হয়ে মুরুব্বিগন শালীসের মাধ্যমে সন্ত্রসী সাদ্দিক মিয়া ও গংদের বিচার করে আসলেও কিছুদিন পরে একই ভাবে অত্যাচার ও পুলিশ বা মুরুব্বিদের বিষয়টি জানালে প্রাণনাসের হুমকি ও ভয় ভীতি দেখিয়ে আসছিল। পরে এঘটনার খবর পেয়ে গোপলার বাজার তদন্তকেন্দ্রের এস আই ছালাহ উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ও স্থানীয় মুরুব্বিগণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন।

এবিষয়ে গোপলার বাজার তদন্তকেন্দ্রের এ,এস,আই ছালাহ উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে আমরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনি তদন্তের সাপেক্ষে বিস্তারিত বলা যাবে । এঘটনায় এলাকায় টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। সংবাদটি লেখা পর্যন্ত তুহিনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।

 

Related posts